April 5, 2020, 4:59 pm

তৃতীয় স্ত্রীর কন্যাকে চতুর্থ স্ত্রী দাবি করে আটক ১৩ সন্তানের বাবা

বরিশালের মুলাদী উপজেলার খালাসিরচর গ্রাম থেকে আমিনুর ব্যাপারী (৫২) নামে এক ভন্ড ফকিরকে আটক করেছে পুলিশ। আমিনুর ব্যাপারী তার তৃতীয় স্ত্রীর আগের ঘরের এক কন্যাকে চতুর্থ স্ত্রী দাবি করে আদালতে মামলা করার পর গতকাল বুধবার বিকেলে সেই কন্যাকে উদ্ধার করতে গিয়ে বেড়িয়ে আসে ভন্ড ফকিরের আসল চরিত্র।এ সময় তার আস্তানা থেকে একটি ছুরি, একটি চাপাতি, রামদা, দা এবং বিপুল পরিমাণ ফকিরগিরির বিভিন্ন বই উদ্ধার করে পুলিশ। ১৩ সন্তানের জনক আমিনুর ওই গ্রামের মৃত মুজাহার বেপারীর ছেলে। সে দীর্ঘদিন ধরে ঝাড় ফুঁকের নামে এলাকায় প্রতারণা চালিয়ে আসছিলো। আমিনুরের ঘরে তিন জন স্ত্রী ছাড়াও আগে তিনটি বিয়ে করেছেন।মুলাদী থানা পুলিশের ওসি জিয়াউল আহসান বলেন, স্ত্রী ইয়াসমিনের সঙ্গে আগের স্বামী আলাউদ্দিন বেপারীর ঔরসের কন্যা লামিয়া খানমকে নিয়ে নিজের বাড়িতে বসবাস করে আসছিল আমিনুর। লামিয়া ধীরে ধীরে বড় হলে তার ওপর কুনজর পড়ে তার। কন্যাকে ভন্ড স্বামীর হাত থেকে রক্ষা করতে ইয়াসমিন এক বছর আগে লামিয়াকে নিয়ে বাবার বাড়ি চলে যান। এ অবস্থায় আমিনুর প্রতারণার মাধ্যমে আদালতের একটি এফিডেভিট দেখিয়ে স্ত্রী ইয়াসমিনের কন্যা লামিয়াকে চতুর্থ স্ত্রী দাবী করে।গত ১৪ আগস্ট লামিয়াকে পাওয়ার জন্য বরিশাল নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করে আমিনুর। আদালত কাগজপত্রের সূত্রে লামিয়াকে উদ্ধার করে আমিনুরের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য মুলাদী থানা পুলিশকে নির্দেশ দেয়। লামিয়াকে উদ্ধার করতে গিয়ে তার মা ইয়াসমিনের কথায় বেড়িয়ে আসে থলের বিড়াল।ইয়াসমিন পুলিশকে জানান, আমিনুরের তিনজন স্ত্রী থাকার পর তার কন্যা লামিয়াকে বিয়ের জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। এর প্রতিবাদ করলে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যার হুমকি দেয় সে।ওসি জিয়াউল আহসান বলেন, প্রতারণার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে পুলিশ তাকে ধারালো অস্ত্রসহ আটক করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরসহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন ওসি।

Comments are closed.


     এই জাতীয় আরো খবর