May 26, 2020, 1:25 pm

ইনজেকশন দিয়ে কৃষককে মেরে ফেললেন ডাক্তার!

মেহেরপুরে অপারেশনের আগে ভুল প্রক্রিয়ায় অজ্ঞানের ইনজেকশন দিয়ে রোগীকে মেরে ফেললেন ডাক্তার। বুধবার সন্ধ্যায় শহরের তাহের ক্লিনিকে এ ঘটনা ঘটে।

মৃত আব্দুল মালেক সদর উপজেলার গোভীপুর গ্রামের বাসিন্দা এবং পেশায় কৃষক। মৃত্যুর খবরে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওই ক্লিনিকে ভাঙচুর করেছে রোগীর স্বজনরা।

মৃত আব্দুল মালেকের মেয়ে সোনিয়া বলেন, মাঠে কাজ করতে গিয়ে হাসুয়ায় আঘাতে বাবা আব্দুল মালেকের পায়ের রগ কেটে যায়। আমরা তাকে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য বাবাকে কুষ্টিয়ায় মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন চিকিৎসকরা।

কিন্তু দালালের খপ্পরে পড়ে বাবাকে নিয়ে যাওয়া হয় শহরের তাহের ক্লিনিকে। বিকেলে বাবার পা অপারেশন করতে যান ওই ক্লিনিকের মালিক ডা. আবু তাহের। বাবাকে অজ্ঞানের সময় কোনো অভিজ্ঞ চিকিৎসক না নিয়ে নিজেই ইনজেকশন দেন ডা. তাহের। এরপর বাবার আর জ্ঞান ফেরেনি। অজ্ঞানের ইনজেকশন প্রক্রিয়া ভুলের কারণে বাবার মৃত্যু হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু হয়েছে এমন খবর ছড়িয়ে পড়লে রোগীর স্বজনরা ক্লিনিকে গিয়ে ভাঙচুর করে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে তাহের ক্লিনিকের মালিক ডা. আবু তাহেরর স্ত্রী ডা. মেলিনা সুলতানা বলেন, যথাযথ নিয়ম মেনেই অপারেশন করা হয়েছে।

রোগীকে অজ্ঞানের সময় অভিজ্ঞ চিকিৎসক নেয়া হয়নি কেন জানতে চাইলে ডা. মেলিনা সুলতানা বলেন, জরুরি মুহূর্তে অজ্ঞানের চিকিৎসক বাইরে থেকে নেয়ার সুযোগ ছিল না। তাই ডা. তাহের নিজেই রোগীকে অজ্ঞান করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মেহেরপুরের সিভিল সার্জন ডা. জিকেএম শামসুজ্জামান বলেন, বিষয়টি তদন্ত করতে ঘটনাস্থলে এসেছি। তদন্ত শেষ হলে ডাক্তার তাহের দোষী হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Comments are closed.


     এই জাতীয় আরো খবর